আজ এনবিআর ভবন ও রাজস্ব সম্মেলন উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রীডলার–সংকটের কারণেই আইএমএফের কাছে যেতে হয়েছে :সৈয়দ আবু নাসের বখতিয়ারআন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের অনুমোদন করা ঋণ পেতে বাংলাদেশকে মোটা দাগে পাঁচ ধরনের সংস্কারকাজ করতে হবেপাকিস্তান: ৪৮ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ মূল্যস্ফীতির সংকটে জর্জরিত দেশটিচলতি অর্থবছরে এনবিআর লক্ষ্যের মাত্র ৩৮ শতাংশ অর্জন করেছে
No icon

আমদানি ও রপ্তানি নিবন্ধন সনদের মেয়াদ বাড়ল

আমদানি নিবন্ধন সনদ (আইআরসি) এবং রপ্তানি নিবন্ধন সনদের (ইআরসি) মেয়াদ এক বছর থেকে বাড়িয়ে পাঁচ বছর পর্যন্ত করা হয়েছে। ব্যবসায়ীরা তাঁদের সুবিধামতো এক থেকে পাঁচ বছরের যে কোনো মেয়াদের জন্য বছরভিত্তিক ফি দিয়ে এ সনদ নিতে পারবেন। উভয় সনদের ক্ষেত্রেই নবায়নের তারিখ থেকে মেয়াদ গণনা করা হবে।বৃহস্পতিবার বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের এক পরিপত্রে এ তথ্য জানানো হয়। সম্প্রতি বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত এক সভায় এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।বিভিন্ন বাণিজ্য সংগঠন দীর্ঘদিন ধরে আইআরসি, ইআরসিসহ সব ধরনের নিবন্ধনের মেয়াদ পাঁচ বছর করার দাবি জানিয়ে আসছে। বছর বছর এসব সনদ নবায়নে সময়, ব্যয় এবং ঝামেলা হচ্ছে বলে অভিযোগ তাঁদের। ফলে সরকারের সিদ্ধান্তকে ব্যবসা-বাণিজ্যের জন্য অত্যন্ত অনুকূল বলে মনে করেন তাঁরা।জানতে চাইলে ঢাকা চেম্বারের সভাপতি রিজওয়ান রাহমান সমকালকে বলেন, সরকারের এ সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানান তাঁরা। এতে সরকার এককালীন রাজস্ব পাবে, যা দিয়ে উন্নয়ন পরিকল্পনা নিতে পারবে সরকার।

নিজের ব্যবসা উদ্যোগের উদাহরণ দিয়ে তিনি বলেন, তাঁর ৯টি প্রতিষ্ঠান থেকে একসঙ্গে ৪৫ বছরের নবায়ন ফি পাবে সরকার। ঢাকা চেম্বারের সভাপতি বলেন, তবে শুধু আইআরসি এবং ইআরসি নয়, সব ধরনের নিবন্ধন এবং নবায়ন অন্তত পাঁচ বছর মেয়াদের জন্য হওয়া উচিত। আমদানি ও রপ্তানির বাইরে সেবা খাতেরও বড় অবদান আছে অর্থনীতিতে। সেবা খাতের জন্য প্রয়োজনীয় সব ধরনের নিবন্ধন এবং সনদ নবায়নেও একই সুবিধা থাকা প্রয়োজন। তাহলে প্রকৃত অর্থেই ব্যবসা সহজীকরণে একটা অগ্রগতি হবে। দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ আকর্ষণে এসব বিষয় অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।তৈরি পোশাকের এক্সেসরিজ খাতের উদ্যোক্তাদের সংগঠন বিজিএপিএমইএর এক বিজ্ঞপ্তিতে গতকাল জানানো হয়, আইআরসি এবং ইআরসির নবায়ন সনদের মেয়াদ এক বছর থেকে বাড়িয়ে পাঁচ বছর করার সরকারি এ সিদ্ধান্তের ফলে বিনিয়োগকারী, আমদানি, রপ্তানিকারকসহ সব ধরনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান উপকৃত হবে।এতে সরকারও এ-সংক্রান্ত রাজস্ব পাবে। অন্য সব সনদ যেমন বন্ড লাইসেন্স, ট্রেড লাইসেন্স, পরিবেশ ছাড়পত্র, আমদানি প্রাপ্যতা, ফায়ার লাইসেন্স প্রাপ্তির ক্ষেত্রেও একই সিদ্ধান্ত নিতে পারে সংশ্নিষ্ট মন্ত্রণালয় এবং বিভাগ। তাহলে প্রকৃত অর্থেই ব্যবসা কার্যক্রম সহজ হবে।